শিরোনাম

ভারতের নয়া কৃষি আইন স্থগিত সুপ্রিম কোর্টের

ঊষার বাণী ডেস্ক :
ভারতের কৃষি আইনের উপর স্থগিতাদেশ জারি করেছে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ। এই মামলার পরবর্তী রায় দেয়া না পর্যন্ত আইন প্রয়োগ করতে কেন্দ্রকে নিষেধ করা হয়েছে। পাশাপাশি নয়া কৃষি আইন পর্যালোচনার জন্য একটি কমিটিও গঠন করেছে আদালত।

মঙ্গলবার সকালে মামলাকারী ও সরকারপক্ষের আইনজীবীদের সওয়াল শোনার পর প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে বলেন, ‘দু’পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য একটি কমিটি গঠন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কমিটি নিজেদের কাজের প্রয়োজনেই তৈরি করছে আদালত। এই কমিটি মামলার বিচারবিভাগীয় পদ্ধতিরই একটি অংশ। তবে এখনই আমরা এই আইন বাতিল করার বিষয়ে কোনও মন্তব্য করব না।’ তবে ভারতের গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, সুপ্রিম কোর্টের এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে রাজি হয়নি কৃষক সংগঠনগুলি। তাদের দাবি, কোনোরকম সংশোধন নয়, কোনো কমিটির সঙ্গে কথা নয়, সম্পূর্ণ ভাবে আইন প্রত্যাহার করতে হবে সরকারকে।

তবে কৃষকদের আইনজীবীরা এসব বিষয় জানালে প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে, এএস বোপান্না এবং ভি রামসুব্রহ্মণ্যমের ডিভিশন বেঞ্চ বলেন, ‘এটা রাজনীতি নয়। রাজনীতি এবং বিচার ব্যবস্থার মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। এ ক্ষেত্রে সকলের সহযোগিতা কাম্য।’ আন্দোলনকারী কৃষকদের সঙ্গে এখনো পর্যন্ত মোট আট দফা বৈঠক হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের। কিন্তু তাতে কোনও সমাধানই বেরিয়ে আসেনি। কৃষকদের মতামত নিয়ে কেন্দ্র আইনে সংশোধন ঘটাতে রাজি হলেও, আন্দোলনকারীরা তাতে রাজি হননি। বরং সম্পূর্ণ আইন প্রত্যাহারের দাবিতেই অনড় তাঁরা।

তাই কমিটি গঠন করে বিষয়টি পর্যালোচনা করাই শ্রেয় বলে জানিয়েছে শীর্ষ আদালত। কিন্তু কৃষকরা কোনো কমিটির সঙ্গে কথা বলতে প্রস্তুত নন বলে আদালতে জানিয়েছেন তাদের আইনজীবী এমএল শর্মা। তিনি যুক্তি দেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একবারও তাদের সঙ্গে কথা বলার প্রয়োজন দেখাননি। তাই কোনো কমিটির সঙ্গে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা। কিন্তু প্রধানবিচারপতি বলেন, ‘এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কিছু প্রশ্ন করা যাবে না কারণ এই মামলায় কোনও পক্ষ নন তিনি।’

Ad Widget

Recommended For You

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *